1. paribahanjagot@gmail.com : pjeditor :
  2. jadusoftbd@gmail.com : webadmin :
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০২:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
দক্ষিণ কোরিয়া থেকে মিটারগেজ লাল-সবুজ ১৪৭টি কোচ দেশে এসে গেছে গত বছর চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে গাড়ি আমদানি কমেছে ২২ শতাংশ মোংলা বন্দর বিষয়ক স্থায়ী কমিটি এবং বন্দর ব্যবহারকারী গাড়ি আমদানিকারকদের যৌথ সভা মোটর সাইকেল সংযোজন ও আমদানিকারকদের সভা অনুষ্ঠিত অটোমোবাইল সংস্থাগুলোকে একত্র করতে কাজ করবে সাফ ট্যুরিজম ফেয়ার : টিকিটে ১৫ শতাংশ ছাড় দেবে বিমান বাংলাদেশ মেট্রোরেল উত্তরা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত সম্প্রসারণের সমীক্ষা চলছে চলন্ত বিমানে ক্রু সদস্যকে ‘মদ্যপ’ যাত্রীর কামড়, জরুরি অবতরণ, যাত্রী গ্রেপ্তার ভাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত কাল থেকে উত্তরা-মতিঝিলে মেট্রোরেল চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত : সাপ্তাহিক বন্ধ শুক্রবার

ডিএসসিসি নগর ভবনে দুই মেয়র : গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে নতুনভাবে শুরু করতে হবে

এক্সিডেন্ট এন্ড সেফটি রিপোর্টার
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, পাঁচ বছর ধরে ঢাকার গণপরিবহনের শৃঙ্খলা আনতে যে কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে, সেখানে কোনো অগ্রগতি দেখছি না। এখন নতুনভাবে সবকিছু শুরু করতে হবে। দুঃখজনক হলেও সত্য, এ সংক্রান্ত ১১টি সভার সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন হয়নি, বরং সিদ্ধান্তপরিপন্থী কার্যক্রম হয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকার ফুলবাড়িয়াস্থ ডিএসসিসি নগর ভবন মিলনায়তনে গণপরিবহনের শৃঙ্খলা আনয়ন সংক্রান্ত কমিটির সভা শেষে ব্রিফিংয়ে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন ডিএসসিসি মেয়র ও কমিটির আহ্বায়ক ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। সভায় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। এছাড়া কমিটির সদস্য আরও ১০টি সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ডিএসসিসি মেয়র বলেন, আমরা নির্বাচিত হওয়ার আগে ঢাকার গণপরিবহনের শৃঙ্খলা আনয়ন, যানজট নিরসন এবং কোম্পানিভিত্তিক বাস পরিচালনা সংক্রান্ত কমিটির ১১টি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেসব সভার সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, দুটি বিষয় ছাড়া কোনো সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হয়নি। তিনি বলেন, এ কমিটির সিদ্ধান্ত ছিল নতুন করে কোনো রুটপারমিট দেয়া হবে না; কিন্তু দেয়া অব্যাহত রয়েছে। ধানমণ্ডি, উত্তরাসহ কয়েকটি চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছিল। কমিটির সিদ্ধান্ত ছাড়া সেসব রুট থেকে বিআরটিসির বাস সার্ভিস তুলে নেয়া হয়েছে। শুধু বাস রুট র‌্যাশনালাইজেশন এবং বাস টার্মিনাল এবং ডিপোর বিষয়ে দুটি সমীক্ষা প্রতিবেদন প্রস্তুত করা হয়েছে।

যেটা নিয়ে আমাদের নতুন করে কাজ শুরু করতে হবে। এজন্য আমরা ১০ নভেম্বর এ কমিটির সভা আহ্বান করেছি। সেখানে আমরা নতুন করে কার্যক্রম শুরুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব। আরেক প্রশ্নের জবাবে ডিএসসিসি মেয়র বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ ডিএসসিসি মেয়রকে আহ্বায়ক করে ডিএনসিসি মেয়রসহ ১২টি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে প্রতিনিধি করে একটি কমিটি গঠন করে। বাস রুট র‌্যাশনালাইজেশন, কোম্পানির মাধ্যমে বাস পরিচালনা করে গণপরিবহনের শৃঙ্খলা আনয়ন করে যানজট নিরসন করাই মূলত এ কমিটির প্রধানতম দায়িত্ব ও কর্তব্য। তিনি বলেন, আনিসুল হকের গৃহীত এ পদক্ষেপ আমলে নিয়ে কার্যক্রম করা। এটা নতুন আঙ্গিকে কীভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়া যায়, সে ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হবে। সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে সঙ্গে নিয়ে যৌথভাবে এ উদ্যোগ বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

ব্রিফিংয়ে ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা শহরে মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েসহ যা কিছু হচ্ছে, এরপরও ৬৩ ভাগ মানুষ গণপরিবহনে চলাচল করবে। এ কারণে বাস সেবার মান উন্নয়ন ও শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার দাবি অত্যন্ত যৌক্তিক। যে কোনো মূল্যে গণপরিবহনের শৃঙ্খলা নিশ্চিত করতে হবে। এ বিষয়টিকে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছি। এখন আমরা দুই মেয়র মিলে সামনে এগিয়ে নিতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করব।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© 2020, All rights reserved By www.paribahanjagot.com
Developed By: JADU SOFT