1. paribahanjagot@gmail.com : pjeditor :
  2. jadusoftbd@gmail.com : webadmin :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১১:৫১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সম্পাদক ওসমান আলীর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, অপসারণ দাবি বৈশ্বিক বিমান সংস্থাগুলোর মুনাফা হবে তিন হাজার কোটি ডলার উত্তরা মোটর্স বাজারে এনেছে ইসুজুর দুই মডেলের বাস বাংলাদেশীদের জন্য ভ্রমণ ফি কমাল ভুটান পরিবহন চাদাবাজি : সিএনজিচালিত অটোরিকশার স্ট্যান্ড দখল নিয়ে সংঘর্ষে রণক্ষেত্র হবিগঞ্জ নিহত ৩, আহত ৫০ গতিসীমা নিয়ে বিতর্ক : শহরে বাইকের সর্বোচ্চ গতি ৩০ কিলোমিটার, মহাসড়কে ৫০ কর্মীরা গণহারে অসুস্থ, এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের ৯০ ফ্লাইট বাতিল মগবাজার রেল গেটে ট্রেনের ধাক্কায় গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের গাড়ি চুরমার নতুন দুটি বিদেশি এয়ারলাইন্সের কার্যক্রম শুরু আগামী মাসে : অক্টোবরে চালু হচ্ছে থার্ড টার্মিনাল চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে ৯ মাসে ৪৩৫৫ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি

কুয়েতে জাহাজকর্মীদের আমরণ অনশন; আছে বাংলাদেশিরাও

আতাউর রহমান
  • আপডেট : শনিবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২১

দীর্ঘদিন ধরে কাজ নেই। জাহাজ মালিক চাকরিচ্যূত করেছে কর্মীদের। জাহাজ ফেলে রেখে চলে গেছে কর্তৃপক্ষ। উপার্জনহীন হয়ে অসহায়ভাবে দিন কাটছে। দীর্ঘদিনের এ অসহায়ত্ব ঘুচাতে এবার আমরণ অনশন শুরু করলেন এক দল জাহাজকর্মী। ইন্টারন্যাশনাল ট্র্যান্সপোর্ট ওয়ার্কার্স ফেডারেশন (আইটিএফ) বলছে, জাহাজ শ্রমিকরা দীর্ঘদিনের বাকি বেতন পেতে চায়। পাশাপাশি তারা নিজেদের বাড়িতে আপনজনদের কাছে ফিরতে চায়। এসব জাহাজ শ্রমিকদের মধ্যে বাংলাদেশি ছাড়াও আছে ভারতীয়, তুর্কী এবং আজারবাইজানি। তবে বাংলাদেশের কতজন ক্রু এই জাহাজে আছে তা জানা যায়নি।

গত ১১ মাস ধরে ইউলা নামক জাহাজটি কুয়েতের শুয়াইবা পোর্টে অবস্থান করছে। এ দীর্ঘ সময়ে কাজহীন অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন শ্রমিকরা। এক প্রকার বন্দী জীবন কাটছে তাদের। আইটিএফের তথ্য মতে, অনশন শুরু হয়েছে ৭ জানুয়ারি। তারা ৪ লাখ মার্কিন ডলার পাওনা চায়। পাশাপাশি জাহাজের বন্দীদশা থেকেও মুক্তি চায়। আইটিএফ বলছে, অনশন কর্মসূচী চলতে থাকলে শ্রমিকদের জীবন বিপন্ন হতে পারে। এরই মধ্যে ছয় জন জাহাজ শ্রমিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের ব্লাড প্রেশার এবং সুগার লেভেলে সমস্যা হচ্ছিল। চিকিৎসা নেয়ার পর তাদেরকে জাহাজে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আইটিএফের আরব ওয়ার্ল্ড এবং ইরান নেটওয়ার্ক কোঅর্ডিনেটর মোহাম্মদ আরাচেদি বলেছেন, ‘কুয়েতের কর্তৃপক্ষকে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে। যাতে আমরণ অনশন করতে থাকা এসব জাহাজ শ্রমিকদের বাঁচানো যায়। বেশির ভাগ শ্রমিকই ১৪ মাস ধরে জাহাজে অবস্থান করছে। কিছু শ্রমিক দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে এ জাহাজে আছে। এসব জাহাজকর্মীরা সাধারণ একটি দাবি জানাচ্ছে। যাতে তাদের সঙ্গে স্থানীয় শ্রমিকদের বদলি করা হয়। আর তারা নিজেদের বাড়িতে ফিরতে পারে।’

আইটিএফ বলছে ইউলা জাহাজের কাতারি মালিক জাহাজটি কুয়েতে রেখে চলে গেছে। এআইএসের তথ্যও এটি নিশ্চিত করেছে। ১৯৮২ সালে নির্মিত ৩৭,২২২ টন ধারণক্ষমতার জাহাজটি এক বছরেরও বেশি সময় ধরে কোনও অবস্থান নিবন্ধন করেনি এবং শেষবার কাতারের দোহার দিকে যাত্রা করেছিল।

কোনো জাহাজ পরিত্যাগ করা হলে সে জাহাজের ক্রুদের সহায়তা করে সংশ্লিষ্ট দেশ। অর্থাৎ জাহাজটি যে দেশের পতাকা বহন করে সে দেশ। ইউলা নিবন্ধিত হয়েছিল প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশ পালাউতে। কিন্তু গত বছরের সেপ্টেম্বরে জাহাজটির রেজিস্ট্রেশন বাতিল হয়ে যায়। বর্তমানে পতাকাহীন অবস্থায় রয়েছে ইউলা। মোহাম্মদ আরাচেদি বলেছেন, ‘পালাউ নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে ব্যর্থ হয়েছে। আইটিএফের পক্ষ থেকে তাদের উদাসীনতার ব্যাপারে বার বারই সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু তারা কোনো পদক্ষেপই নেয়নি।’

আইটিএফ ক্রুদের খারাপ অবস্থা লক্ষ্য করে ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে এবং পোর্টের কর্তৃপক্ষের কাছে সহায়তার আবেদন জানিয়েছে। কুয়েতের পক্ষ থেকে আইটিএফকে বলা হয়েছে, যেহেতু জাহাজটি এখন পতাকাহীন। তাই এর সমাধান করার দায়িত্ব কুয়েতি মেরিটাইম কর্তৃপক্ষের।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© 2020, All rights reserved By www.paribahanjagot.com
Developed By: JADU SOFT