1. paribahanjagot@gmail.com : pjeditor :
  2. jadusoftbd@gmail.com : webadmin :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১২:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সম্পাদক ওসমান আলীর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, অপসারণ দাবি বৈশ্বিক বিমান সংস্থাগুলোর মুনাফা হবে তিন হাজার কোটি ডলার উত্তরা মোটর্স বাজারে এনেছে ইসুজুর দুই মডেলের বাস বাংলাদেশীদের জন্য ভ্রমণ ফি কমাল ভুটান পরিবহন চাদাবাজি : সিএনজিচালিত অটোরিকশার স্ট্যান্ড দখল নিয়ে সংঘর্ষে রণক্ষেত্র হবিগঞ্জ নিহত ৩, আহত ৫০ গতিসীমা নিয়ে বিতর্ক : শহরে বাইকের সর্বোচ্চ গতি ৩০ কিলোমিটার, মহাসড়কে ৫০ কর্মীরা গণহারে অসুস্থ, এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের ৯০ ফ্লাইট বাতিল মগবাজার রেল গেটে ট্রেনের ধাক্কায় গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের গাড়ি চুরমার নতুন দুটি বিদেশি এয়ারলাইন্সের কার্যক্রম শুরু আগামী মাসে : অক্টোবরে চালু হচ্ছে থার্ড টার্মিনাল চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে ৯ মাসে ৪৩৫৫ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি

লিজে নেওয়া পুরনো উড়োজাহাজ ফেরত না দিয়ে কেন কিনতে চায় বিমান?

চৌধুরী আকবর হোসেন
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

মিসরের ইজিপ্ট এয়ারে সঙ্গে অসম চুক্তি করে লিজ নেওয়া দুটি উড়োজাহাজ ফেরত দিতে গিয়ে কোটি টাকা লোকসান গুনতে হয়েছিলো বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের। বিষয়টি নিয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়ের চাপের মুখে সেই লিজের সময়ে দায়িত্ব না থাকলেও বিমানের পরিচালক (প্রকৌশল) গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) খন্দকার সাজ্জাদুর রহিম ও প্রধান প্রকৌশলী (ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিস) গাজী মাহমুদ ইকবালকে অব্যাহতি দিয়ে দায় সারে বিমান পরিচালনা পর্ষদ। এবার আয়ারল্যান্ড থেকে ২০০৯ সালে ইজারায় নেওয়া পুরাতন দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ ফেরত না দিয়ে কিনে নিতে চাইছে বিমান। লিজের উড়োজাহাজ ফেরত দেওয়ার খরচ ও জটিলতা এড়াতে এই কৌশলে অবলম্বন করেছে বিমান কর্তৃপক্ষ।
সূত্র জানায়, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স আয়ারল্যান্ড থেকে ২০০৯ সালে দুটি বোয়িং ৭৩৭ -৮০০ উড়োজাহাজ লিজ নেয়। দুটির রেজিস্ট্রেশন এস২-এএফএল এবং এস২-এএফএম। উড়োজাহাজ দুটি ফেরত দিতে হলে মেরামত করে আগের অবস্থায় করতে যে ব্যয় হবে তার চেয়ে কম টাকা কিনতে পারবে বিমান। এ কারণে ২০০১ সালে তৈরি করা উড়োজাহাজ দুটি ফেরত দেওয়ার পরিবর্তে কিনে নেওয়ার চেষ্টা বিমান কর্তৃপক্ষের। এজন্য উড়োজাহাজ দুটি ক্রয়ের আমদানি অনুমতির পেতে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে পুরাতন উড়োজাহাজ দুটি কিনতে খরচ হবে প্রায় ১৬৮ কোটি টাকা। যদিও পুরাতন উড়োজাহাজ না কিনতে পরামর্শ উঠে আসছে আলোচনায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিমানের একজন কর্মকর্তা বলেন, উড়োজাহাজ দুটি ফেরত দিতে হলে যে অবস্থায় আনা হয়েছিল সে অবস্থা ফেরত দিতে হবে। এজন্য পুরো বিমানের মেরামত, সংস্কার করতে হবে। এতে যে টাকা ব্যয় হবে তার চেয়ে কম টাকায় কেনা যাবে। এখন যে অবস্থায় আছে, তাতে বিমান নিজে চালাতে তেমন কোনও মেরামতের প্রয়োজন নেই। কিন্তু ফেরত দিতে গেলে খুঁটিনাটি বিষয়গুলোরও সংস্কার করতে হবে। এজন্য উড়োজাহাজ দুটি ফেরত দিতে গেলে যে লোকসান হবে, কিনে নিলে কম লোকসান হবে।
এদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো চিঠিতে বিমান মন্ত্রণালয় বলছে, প্রতিটি উড়োজাহাজ মূল্য ৯৭ লাখ ৮২ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার। বিমান নিজস্ব অর্থায়নে এই উড়োজাহাজ কিনবে। এই উড়োজাহাজ দুটি ক্রয় করতে আয়ারল্যান্ডের সেলেসটিয়াল এভিয়েশন ট্রেডিং ৪১ লিমিটেডের সঙ্গে ২৩ ডিসেম্বর চুক্তিও করেছে বিমান। আর উড়োজাহাজ দুটি ২০০৯ সালের অক্টোবরে ড্রাই লিজের মাধ্যমে নিয়ে ব্যবহার করছে বিমান। তবে উড়োজাহাজ দুটি না কিনলে ফেরত দিতে কত টাকা খরচ হবে সে তথ্য জানায়নি বিমান। উড়োজাহাজ দুটি কিনতে ১৬৭ কোটি ৯৬ লাখ ৫৫ হাজার ২৫০ টাকা আমদানি অনুমতিপত্র দিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।
দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) তথ্য মতে, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে আটটি খাতে দুর্নীতি হয়। এরমধ্যে অন্যতম হচ্ছে উড়োজাহাজ লিজ নেওয়া, যন্ত্রপাতি কেনা।
২০০১ সালে তৈরি করা উড়োজাহাজ দুটি বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে কোনও পরিষ্কার তথ্য দেয়নি বিমান। ফেরত না দিয়ে কিনলে কি সুফল পাবে তাও সুনির্দিষ্ট তথ্যও উপস্থাপন করেনি বিমান।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিমানের মুখপাত্র উপমহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার বলেন, দুটি উড়োজাহাজ ক্রয় চূড়ান্ত হয়েছে। এখন শুধু মালিকানা হস্তান্তর সংক্রান্ত বিষয়ে বেসামরিক চলাচল কর্তৃপক্ষের আনুষ্ঠানিকতা বাকি আছে। উৎস: বাংলা ট্রিবিউন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© 2020, All rights reserved By www.paribahanjagot.com
Developed By: JADU SOFT